ঈমান আকীদা

ঈমান আকীদা

24 পাঠ

আল্লাহর প্রতি মানুষের আকীদা-বিশ্বাস সুদৃঢ় করা এ বিভাগের মূল উদ্দেশ্য। মাধ্যম  হিসেবে থাকছে আল্লাহর নাম ও গুণাবলী সম্পর্কে সঠিক ধারণা প্রদান, আল্লাহ তাআলার মহাবৈশ্বিক নিদর্শনাবলীর প্রতি মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ; যাতে তাদের হৃদয় তাওয়াক্কুল, ভয় ও আশা নিয়ে রাব্বুল আলামীনের সাথে জুড়ে যায় এবং ঈমানী শান্তি ও তৃপ্তি নিয়ে জীবনযাপন করতে লাগে।

তাওহীদ বাস্তবায়নকারীর  মর্যাদা

তাওহীদ হচ্ছে এমন একটি মহান ভিত্তি, যার উপর আসমান-যমীন প্রতিষ্ঠিত এবং যার উদ্দেশ্যে মানুষ ও জ্বীন কে সৃষ্টি করা হয়েছে এবং নবী-রাসূলদেরকে প্রেরন করা হয়েছে। বান্দাহ যে পরিমাণ তাওহীদ ও আল্লাহর জন্য একনিষ্ঠতা বাস্তবায়ন করবে এবং শিরক হতে দূরে থাকবে, সে দুনিয়া ও আখিরাতে সে পরিমাণ নিরাপত্তা ও হিদায়াতের উপর থাকবে।

8509
জান্নাতের সুখ ও জাহান্নামের শাস্তি

জান্নাত হচ্ছে, অনন্ত সুখময় স্থান, আর জাহান্নামে রয়েছে কঠিন শাস্তি। কেহ জান্নাতের নেয়ামত সম্পর্কে জানলে উহার আশায় নেককাজে সচেষ্ট হবে, আর জাহান্নামের শাস্তি সম্পর্কে জানলে উহা হতে দূরে থাকার জন্য খারাপ কাজ হতে বিরত থাকবে।তাই এই খুতবায় জান্নাতের সুখ ও জাহান্নামের শাস্তি সম্পর্কে আকর্ষনীয় ও মর্মস্পর্শী আলোচনা করা হয়েছে।

9077
পরকালীন জীবনই আসল জীবন

মানুষের মৃত্যুবরণ করা এক প্রাত্যহিক, বরং প্রতি মুহূর্তের ঘটনা, প্রতি মুহূর্তেই পৃথিবীর কোথাও না কোথাও মারা যাচ্ছে বহু মানুষ। তবে মৃত্যুবরণ মানুষের সামগ্রিক ধ্বংস নয়। বরং মৃত্যুর দরজা দিয়ে সে পাড়ি জমাচ্ছে অনন্ত জগতে। তাই বুদ্ধিমান তো সেই যে দুনিয়ার জীবনকে পরকালের ফসল ফলানোর জন্য ব্যবহার করে। শাশ্বত ও অনন্ত জীবনের পাথেয় সংগ্রহের কাজে লাগায়।

2800
মৃত্যুর পর যা ঘটবে

খুতবায় যা থাকবে : মৃত্যুপরবর্তী জীবনে কিয়ামতের ভয়াবহ অবস্থার বর্ণনা, সৎ কাজের প্রতি উৎসাহ প্রদান এবং অসৎ কাজ থেকে বারণ, সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পূর্বেই তাওবায়ে নাসূহা করার প্রতি উৎসাহ দান।

6654
কিয়ামতের কিছু আলামত

এই খুতবার আলোচনার বিষয় হলো কিয়ামতের কিছু আলামত ও নিদর্শন। কিয়ামত দিবসের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন ঈমানের রোকনসমূহের একটি। আল্লাহর রাসূল কিয়ামতের আলামত ও নিদর্শন সম্পর্কে বলে গেছেন। বান্দার উচিৎ কিয়ামতের আলামত গুলো সম্পর্কে জানা এবং কেয়ামত সংঘটিত হওয়ার আগে দ্বীনের দিকে ফিরে আসা এবং তার রবের প্রতি মনোনিবেশ করা।

9387